,
সংবাদ শিরোনাম :

টানা ছয় বার নির্বাচিত ঠাকুরগাঁওয়ের এমপি দবিরুল ইসলামের বিকল্প নেই

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ ঠাকুরগাঁও-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব দবিরুল ইসলাম টানা ছয় বার নির্বাচিত হওয়ায় দলের উন্নয়ন, এলাকার রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভাট, মসজিদ, মন্দির, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসহ সকল ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আর এ কারনেই মনোনয়ন পেলে আবারো সর্বচ্চো ভোটে জয়ের আশা করছেন আ’লীগের তৃনমুল নেতাকর্মীরা।
এ জেলার হরিপুর ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নিয়ে গঠিত ঠাকুরগাঁও-২ আসন। এ আসনটিতে রেকর্ড গড়েছে আ’লীগের হেভিওয়েট নেতা আলহাজ্ব দবিরুল ইসলাম। টানা ৬ বার বিপুল ভোটের ব্যবধানে আ’লীগের হয়ে জয়লাভ করেছেন তিনি। আর এ কারনে তৃনমুলের ভোটে বর্তমানে জেলা আ’লীগের নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন। তার গ্রহন যোগ্যতার কারনে অন্য কোন নেতা অবস্থান তৈরি করতে পারেনি। বার বার নির্বাচিত হওয়ার ফলে দুটি উপজেলার মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার চেয়ে অনেক বেশি সুবিধা পেয়েছেন। আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারো জয়ের আশায় এরই মধ্যে তৃণমুল নেতাকর্মীদের নিয়ে উপজেলার প্রতিটি গ্রামাঞ্চলের মানুষের সাথে বেশি বেশি যোগাযোগ স্থাপন করছেন। ঠাকুরগাঁও-২ আসনের উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যানগন অধিকাংশই আ’লীগের হয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আর এর সুফল মিলেছে ভাল নেতৃত্বের কারনে। তৃণমুল নেতারা মনে করেন এ আসনটি দীর্ঘ দিন ধরে রাখার কারন হচ্ছে যোগ্যনেতৃত্ব। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে এমপি দবিরুল ইসলাম আ’লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগসহ দলের সহযোগী সংগঠনগুলোকে এগিয়ে নিয়ে এসেছেন। তাই এ আসনে বর্তমান এমপি’র কোন বিকল্প নেই। আর এ কারনে আমরা মনে করি আগামী জাতীয় নির্বাচনে দবিরুল ইসলামকে মনোনয়ন দিলে আবারো বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন। তবে ২ আসনে বিএনপি’র তৃনমুল নেতারা দবিরুল ইসলামের বিপক্ষে একক প্রার্থী হিসেবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলগীকে চান। অন্যদিকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা আ’লীগের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান প্রবীর কুমার, বিএনপি’র সাবেক নেতা জেড মরতুজা তুলা ও জাতীয়পার্টি থেকে নুরনাহার ২ আসনে এমপি প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ করছেন।
দুই আসনের এমপি দবিরুল ইসলাম জানান, জেলা আ’লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে স্বাধীনতা বিরোধী ও আ’লীগে অনুপ্রবেশকারি কিছু নেতা আমার বিজয় নিশ্চিত জেনে এবং নিজে মনোনয়ন পাবার আশায় অর্থের বিনিময়ে বিভিন্নভাবে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। যার কোন সত্যতা নেই। আর দীর্ঘ ৩০ বছরে এ আসনটিতে অন্য দল থেকে এমপি হতে পারেনি। আমি আশা করবো মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় নেতারা যোগ্য ব্যক্তিকেই মনোনয়ন দিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com