,
সংবাদ শিরোনাম :

চার সপ্তাহ পর ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ টানা চার সপ্তাহ মূল্য সূচক ও লেনদেন হ্রাসের পর ঊর্ধ্বমুখী ধারায় ফিরেছে দেশের শেয়ারবাজার। শেষ সপ্তাহজুড়ে (২৪ থেকে ২৮ ডিসেম্বর) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সবক’টি মূল্য সূচক এবং দৈনিক গড় লেনদেন বেড়েছে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৬১ দশমিক ৭৩ পয়েন্ট বা ১ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমেছিল ৪৭ দশমকি ২৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৭৬ শতাংশ। অপর দুটি সূচকের মধ্যে শেষ সপ্তাহে ডিএসই-৩০ বেড়েছে ৫২ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহেও এ সূচকটি কমেছিল ১৫ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৭১ শতাংশ।

আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক বেড়েছে ২৪ দশমিক ১১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ১০ দশমিক শূন্য ২ পয়েন্ট বা দশমিক ৭৩ শতাংশ।

শেষ সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৯টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে ১১২টির দাম আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ২০২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টির দাম।

সপ্তাহে মূল্য সূচকের সঙ্গে বেড়েছে দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ। সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৪৭৭ কোটি ৭২ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৪২৭ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৫০ কোটি ৩ লাখ টাকা বা ১১ দশমিক ৭০ শতাংশ।

তবে মোট লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা কমেছে। বড়দিনের উপলক্ষে শেয়ারবাজারে লেনদেন বন্ধ থকায় শেষ সপ্তাহে এক কার্যদিবস কম লেনদেন হওয়ার কারণে মোট লেনদেন কম হয়েছে। শেষ সপ্তাহের চার কার্যদিবসে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৯১০ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসে লেনদেন হয় ২ হাজার ১৩৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহে মোট লেনদেনের ৮৭ দশমিক ৬৭ শতাংশই ছিল ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দখলে। এ ছাড়া বাকি ৩ দশমিক ১১ শতাংশ ‘বি’ ক্যাটাগরিভুক্ত, ৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ ‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত এবং ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ ‘জেড’ ক্যাটাগরিভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের।

এদিকে গত সপ্তাহে মূল্য সূচক ও লেনদেন বাড়ার পাশাপাশি ডিএসইর বাজার মূলধনের পরিমাণও বেড়েছে। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ২২ হাজার ৮৯৪ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ১৮ হাজার ৭ কোটি টাকা।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৫৮ কোটি ১৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ৮ দশমিক ২৮ শতাংশ।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা নাহি অ্যালুমিনিয়ামের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ। ৬৩ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইসলামী ব্যাংক।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যাল, অলেম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, সিটি ব্যাংক, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ব্র্যাক ব্যাংক, ন্যাশনাল টিউবস এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com