,
সংবাদ শিরোনাম :

সংসার ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ব্যস্ত নায়িকা সাহারা

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ মনে আছে এক সময়ের রুপালী পর্দা কাঁপানো নায়িকা সাহারার কথা! অভিনয় থেকে এখন অনেক দূরে তিনি। তবে এখনো তাকে ভোলেনি মানুষ। বাংলা সিনেমা নিয়ে কথা হলে অনেক আলোচিত নামের ভিড়ে এখনো চলে আসে তার নামটাও। অনেকেই জানার ইচ্ছে পোষণ করেন এখন কোথায় কেমন আছেন তিনি? এ নায়িকার বর্তমান অবস্থা জানার চেষ্টা চালালো জাগো নিউজ।

নায়িকার ফোন নাম্বার সংগ্রহ করে সরাসরি তার সঙ্গে যোগাযোগের প্রচেষ্টা একেবারে বিফলে যায়নি। রোববার বিকেলে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হয়। ওপার থেকে শোনা যাচ্ছে একটি সিনেমার গান। ফোন নাম্বার খোলা পেয়ে কিছুটা স্বস্তি। এবার ফোনটা রিসিভ করলেই হয়। না কেউ ফোন রিসিভ করলো না। নাম্বার যেহেতু খোলা আছে আরেকবার চেষ্টা চালাতে ক্ষতি কি? না এবার আর বিফলে যায়নি। ফোন রিসিভ হয়েছে। তবে ফোনের ওপার থেকে একটা পুরুষ কণ্ঠ শোনা যাচ্ছে।

এটা কি নায়িকা সাহারার ফোন নাম্বার? তার উত্তর আসলো হ্যাঁ। ফোন রিসিভ করেছিলেন তার স্বামী মাহবুবুর রাহমান মনির। জানালেন সাহারা ঘুমিয়ে। সাহার বর্তমান সম্পর্কে জানকে চাইলে বললেন,‘ সারা ভালো আছেন। এখন সে পুরোদস্তু সংসারি। নিজে পরিবার ও সন্তান নিয়ে আমরা অনেক ভালো আছি। দোয়া করবেন যেন এমন ভালোভাবেই সারা জীবন কাটতে পারি।’

সাহারার আবারও অভিনয়ে ফেরার কোনো সম্ভাবনা আছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘ আপাতত এ বিষয়ে ভাবছেন না কিছু। পুলিশ প্লাজায় আমাদের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ‘সাহারা ফ্যাশন হাউস’। সংসারের ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ভালোই আছি আমরা।’

অভিনেত্রী সাহারা অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘রুখে দাঁড়াও’ মুক্তি পায় ২০০৩ সালে। নৃত্য পরিচালক আজিজ রেজা’র স্কুলে পরিচয় হয়েছিল পরিচালক শাহাদাৎ হোসেন লিটনের সঙ্গে, তারই ফলশ্রুতিতে প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয়। বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন শাকিব খান। নানা কারণে ছবিটি তেমন ব্যবসা করতে পারেনি, কিন্তু হাল ছাড়েননি সাহারা।

নিজেকে নায়িকা হিসেবে প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টায় সাহারা বিভিন্ন চলচ্চিত্রের অশ্লীল দৃশ্যে অভিনয় করে ময়ূরী-পলিসহ অন্যান্য বিতর্কিত নায়িকাদের পাশে নিজের নাম যুক্ত করে। চলচ্চিত্রে অশ্লীলতাবিরোধী অভিযান শুরু হলে নিজেকে পাল্টে ফেলেন সাহারা। সুস্থ ধারার চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে শুরু করেন। প্রিয়া আমার প্রিয়া চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ক্যারিয়ারের সুসময় শুরু হয় তার। এ চলচ্চিত্রের নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন এবং চলচ্চিত্রটি ব্যাপক সফলতা পায়।

ঢাকা টু বোম্বে ছবির প্রযোজক ঢাকার ধামরাইয়ের বাসিন্দা মাহবুবুর রহমান মনির সঙ্গে সাহারার পরিচয় এবং প্রেম হয়। কিন্তু দুজনের পরিবারের সম্মতি না থাকায় প্রায় তিন বছর পর ২০১৫ সালে জুলাইয়ে তাদের বিয়ে হয় মহা ধুমধামের মাধ্যমে। ঢাকার মহাখালীতে রাওয়া কনভেনশন হলে তার বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সাহারা বিয়ের পর চলচ্চিত্র থেকে দূরে সরে গিয়ে স্বামী সংসার নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সাহারা পড়াশোনা করেছেন এসএসসি পর্যন্ত। চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে প্রতিষ্ঠার পেছনে সবসময় প্রেরণা দিয়ে গেছেন তার মা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com