,
সংবাদ শিরোনাম :

সরকারের হস্তক্ষেপে খালেদার জামিন স্থগিত, দাবি রিজভীর

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতে সরকারের হস্তক্ষেপ রয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। এর প্রমাণ হিসেবে তিনি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং আইনমন্ত্রীর বক্তব্য উল্লেখ করেন।

‘খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই’ মঙ্গবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দেয়া এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘ওবায়দুল কাদেরের এমন কথাতে বোঝা যায় যে, ‘ঠাকুর ঘরে কেরে, আমি কলা খাইনি’ প্রবাদের মতো। এতেই বোঝা যায় যে, চেয়ারপারসনের জামিন স্থগিতে সরকারের হস্তক্ষেপ রয়েছে।

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে থাকে অথচ তাদের ব্যাপারে দুদক রাতকানা বাঁদুরের মতো আচরণ করছে। আর খালেদা জিয়া ও বিএনপির পিছনে পড়ে থাকতেই যেন দুদককে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘জনগণ বিশ্বাস করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার নামে দায়ের করা মামলা রাজনৈতিক, তাকে মিথ্যে মামলার রায়ে কারাগারে পাঠানো রাজনৈতিক, তার জামিন বিলম্ব রাজনৈতিক, এমনকি জামিন স্থগিতও রাজনৈতিক’।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই, এদেশে যদি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় সে নির্বাচনে বিএনপি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় আসবে’।

দুদকের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘সারা দেশের অর্থনীতি লুট হচ্ছে, অথচ তারা রাতকানা বাঁদুরের মত তার আচরণ করছে। আওয়ামী লীগের অস্বচ্ছতা, দুর্নীতির ক্ষেত্রে তারা নির্লিপ্ত;েআর খালেদা জিয়া বিএনপির ব্যাপারে তারা খড়গহস্ত।

অ্যাটর্নি জেনারেলকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘সরকারের হীন চরিত্র বাস্তবায়নে অ্যাটর্নি জেনারেল কাজ করছেন। তিনি (এটর্নি জেনারেল ) বললেন, ‘খালেদা জিয়া বের হতে পারবেন না’। মনে হচ্ছে এটর্নি জেনারেল চিফ জাস্টিসের উপরে। খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখতে শেখ হাসিনা বিচার বিভাগকে কব্জায় রাখতে তাকে সর্বোচ্চ দায়িত্ব দিয়েছেন। এছাড়া আইনমন্ত্রীও একই কথা বলেছেন’।

রিজভী অভিযোগ করেন, একতরফা নির্বাচনে বিপদমুক্ত রাখতে খালেদা জিয়াকে স্যাঁতস্যাঁতে কারাগারে আটকে রেখেছে। তারা মুক্তিপণ আদায় করতে এমনটি করছে সরকার। যে আমরা একতরফা নির্বাচন যতক্ষণ তিনি না মানবেন ততক্ষণ তাকে ছাড়বেন না। এ থেকে বোঝা যায়, আদালতকে প্রভাবিতই নয়, সরাসরি হস্তক্ষেপ করছে সরকার।

সংবাদ সম্সেলনে বিএনপি নেতা আতাউর রহমান ঢালী, খায়রুল কবির খোকন, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com