,
সংবাদ শিরোনাম :

আওয়ামী লীগের ওপর রাখা আস্থার সম্মান দিয়ে যাব

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ দেশের মানুষের সেবা করে যাচ্ছে। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রেখেছে। মানুষ আওয়ামী লীগের ওপর যে আস্থা রেখেছে, আওয়ামী লীগ তার সম্মান দিচ্ছে। সম্মান দিয়ে যাবে। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে এ দেশের মানুষ রাষ্ট্রভাষা বাংলা পেয়েছে, স্বাধীনতা পেয়েছে, উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

শনিবার আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় সংসদে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন দেশকে সেই জায়গায় নিয়ে যেতে পেরেছি যে স্বপ্ন জাতির পিতা দেখতেন। তবে আমরা অনেক দূর যেতে চাই। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দিনবদলের সনদ দিয়েছিলাম। মানুষের দিনবদল হচ্ছে।

এ সময় আওয়ামী লীগ গঠনের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে দলের সভাপতি বলেন, এ অঞ্চলের শোষিত, বঞ্চিত ও দরিদ্র জনগণের ভাগ্য উন্নয়ন ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় ১৯৪৯ সালেল ২৩ জুন আওয়ামী লীগ গঠিত হয়। পরে ১৯৫৫ সালে অসাম্প্রদায়িক আওয়ামী লীগ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে মুসলিম কথাটি বাদ দেয়া হয়। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে যাতে এই প্রতিষ্ঠানের সদস্য হতে পারে তার জন্য এটি করা হয়। দল গঠনের পর এ অঞ্চলের মানুষের আর্থসামাজিক মুক্তির জন্য আওয়ামী লীগ সংগ্রাম করে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগই একমাত্র সংগঠন যার নীতি আছে, আর্দশ আছে। একটি দর্শন রয়েছে। স্বাধীনতার চেতনার স্বপ্ন দেখিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। স্বাধীনতা যুদ্ধের জন্য যা যা প্রয়োজন তার সবই প্রস্তুতি বঙ্গবন্ধু করে রেখেছিলেন। পরিবারের সদস্য হিসেবে তা আমি জানি। পাশাপাশি জনগণের ম্যান্ডেট নিতে নির্বাচনেও অংশ নিয়েছিলেন। তিনি বলেন, প্রদেশকে রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আইনকানুনসহ যা যা প্রয়োজন তা করে গেছেন। এখন যেখানেই হাত দেই দেখি তা বঙ্গবন্ধু করে গেছেন। যে রাজনৈতিক দল মাটি ও মানুষের থেকে গড়ে উঠে সেই দলই পারে মানুষকে কিছু দিতে। বাংলাদেশের যা কিছু অর্জন, এ দেশের জনগণ যা পেয়েছে তার সবই এসেছে আওয়ামী লীগের হাত ধরে।

দেশের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে সরকার প্রধান বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থা অত্যন্ত উন্নত। শক্তিশালী অর্থনৈতিক অবস্থা আমরা সৃষ্টি করতে পেরেছি। আমাদের উন্নয়ন মু্ষ্টিমেয় গোষ্ঠীর জন্য নয়। আমাদের উন্নয়ন দেশের সকল মানুষের উন্নয়ন। আমরা পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করেছিলাম বলেই দেশের মানুষ তার সুফল এখন পাচ্ছেন। বাংলাদেশ সাহায্যের জন্য হাত পেতে চলে এই কথা কেউ আর এখন বলে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com