,
সংবাদ শিরোনাম :
» « ঠাকুরগাঁও জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি মকবুল হোসেন বাবুর ইন্তেকাল» « পঞ্চগড়ের রাবার ড্যামটি অকার্যকর হওয়ায় এলাকা প্লাবিত» « পঞ্চগড়ে চা চারা চুরির অভিযোগে মামলা» « এরশাদের মৃত্যুতে রেলপথ মন্ত্রীর গভীর শোক প্রকাশ» « সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ে প্রবল বর্ষণ ও ঝড়ো হাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি» « খুলনার দাকোপের লাউডোবে রুপান্তরের আয়োজন কিশোর- কিশোরীদের সু-স্বাস্থ্য সুরক্ষিত পরিবেশ প্রতিষ্ঠা বিষয়ক ক্যাম্পাইন অনুষ্ঠিত» « সারাদেশে অব্যাহত সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সোনাগাজী রিপোর্টার্স ইউনিটির মানববন্ধন» « ঠাকুরগাঁও গড়েয়ায় জুয়ার আসর আগুনে পুড়িয়ে দিল ওসি আশিকুর রহমান» « সাংবাদিক রাসেদুল ইসলাম রাসেল নিখোঁজ» « সোনাগাজীর ছাড়াইতকান্দি হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন- মাসুদ চৌধুরী এমপি

কাশ্মীরে জমেছে ইমরান-তিশার রোমান্স

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ বাংলা সংগীতাঙ্গনে সবেচেয়ে বেশি গানে কোটি ভিউয়ের মাইলফলক ছোঁয়া গানের শিল্পী ইমরান মাহমুদুল। প্রতিবারই নতুন চমক নিয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হন তিনি। এবার ঈদুল আযহার জন্যও নতুন কিছু নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছেন জনপ্রিয় এ কণ্ঠশিল্পী। সম্প্রতি ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের অঞ্চল লাদাখে শেষ করেন নতুন একটি গানের ভিডিওর শুটিং। এই প্রথম বাংলাদেশের কোন শিল্পীর গানের ভিডিও হলো লাদাখে।

যেখানে মূলত বলিউড ও টালিউডের সুপার-ডুপার হিট সব চলচ্চিত্রের শুটিং হয়। ‘আমার এ মন’ শিরোনামের গানটি লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন আর সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন ইমরান নিজেই। গানের ভিডিওটিতে ইমরানের সঙ্গে মডেল হয়েছেন তানজিন তিশা। তানজিন তিশাকে এর আগে ইমরানের সঙ্গে ‘বলতে বলতে চলতে চলতে’ ও ‘শেষ সূচনা’ গানে মডেল হিসেবে দেখা গিয়েছিল। আবাও এক হয়েছেন তারা। ভিডিওটিতে দেখা যাবে কাশ্মীরে জমিয়ে রোমান্স করছেন তারা। ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন এ সময়ের আলোচিত নির্মাতা তানিম রহমান অংশু।

ইমরান বলেন, ‘জীবনে অনেক মিউজিক ভিডিওর কাজ করেছি তবে এই কাজটির অভিজ্ঞতা সবচেয়ে রোমাঞ্চকর! বলিউড ও টালিউডের বিখ্যাত অভিনেতা-অভিনেত্রীরা সেখানে গিয়ে শুটিং করে থাকেন। সেজন্য অনুমতিও নিতে হয়। এতদিন চলচ্চিত্রে এসব লোকেশন দেখেছি। এবার নিজের ভিডিওর শুটিং করতে গিয়ে আরো মুগ্ধ হয়েছি! গানটি ভালোবাসার কথামালায় সাজানো। গানের কথা-সুর-গায়কীর সঙ্গে লোকেশনটাকে খুবই অসাধারণ লাগছিল। প্রায় চার-পাঁচ ঘন্টা গাড়িতে জার্নি করে করে একটা লোকেশন থেকে আরেকটা লোকেশনে গিয়ে ভিডিওটির শুটিং করেছি। এত উঁচু উঁচু জায়গায় আমাদের উঠেতে হয়েছে যে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে খুব কষ্ট হচ্ছিল। ফলে সারাক্ষণ সঙ্গে আলাদা অক্সিজেন রাখতে হয়েছে। দু’একবার অসুস্ত’ বোধও করছিলাম। ভিডিওর ফুটেজ দেখার পর মনে হচ্ছে সব পরিশ্রম স্বার্থক। এটা আমার জীবনের অন্যতম একটি অভিজ্ঞতা। আশাকরি গানটি দর্শক-শ্রোতারা খুব ভালোভাবে নিবেন।’

তানজিন তিশা বলেন, ‘মনে হচ্ছিল শুটিংয়ের পুরোটা সময় একটা স্বপ্নের মধ্যে ছিলাম। অসাধারণ একটি কাজ হয়েছে। শ্বাস-প্রশাসের অসুবিধা, জার্নি সব ছাপিয়ে লোকেশনগুলোর মাঝেই যেন ডুবে আছি এখনো। ইমরান আর আমার আগের দুটি ভিডিওর চেয়েও এটি শ্রোতাদের কাছে বেশি প্রশংসিত হবে বলে আশাকরি।’

ইমরান জানান, ঈদের ঠিক আগে আগে গানচিল মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি প্রকাশ করা হবে। দেখা যাবে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলেও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com