,
সংবাদ শিরোনাম :
» « ঠাকুরগাঁও জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি মকবুল হোসেন বাবুর ইন্তেকাল» « পঞ্চগড়ের রাবার ড্যামটি অকার্যকর হওয়ায় এলাকা প্লাবিত» « পঞ্চগড়ে চা চারা চুরির অভিযোগে মামলা» « এরশাদের মৃত্যুতে রেলপথ মন্ত্রীর গভীর শোক প্রকাশ» « সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ে প্রবল বর্ষণ ও ঝড়ো হাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি» « খুলনার দাকোপের লাউডোবে রুপান্তরের আয়োজন কিশোর- কিশোরীদের সু-স্বাস্থ্য সুরক্ষিত পরিবেশ প্রতিষ্ঠা বিষয়ক ক্যাম্পাইন অনুষ্ঠিত» « সারাদেশে অব্যাহত সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সোনাগাজী রিপোর্টার্স ইউনিটির মানববন্ধন» « ঠাকুরগাঁও গড়েয়ায় জুয়ার আসর আগুনে পুড়িয়ে দিল ওসি আশিকুর রহমান» « সাংবাদিক রাসেদুল ইসলাম রাসেল নিখোঁজ» « সোনাগাজীর ছাড়াইতকান্দি হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন- মাসুদ চৌধুরী এমপি

ঠাকুরগাঁওয়ের সেভেন ডে ক্লিনিকে চিকিৎসকের ভুলে প্রসূতি মায়ের মৃত্যু

আলোরকন্ঠ রিপোর্টঃ ঠাকুরগাঁও শহরের সেভেন ডে নার্সিং হোম এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চিকিৎসকের ভুলে এক প্রসুতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার বিকেলে নিহত প্রসূতি মায়ের স্বজনরা এমন অভিযোগ করেন।

নিহত নাছিমা আক্তার (২৫) শহরের নিশ্চিন্তপুর এলাকার মো. রুবেল ইসলামের স্ত্রী।

নিহতের মা রহিমা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, গত রবিবার রাতে আমার মেয়ে নাছিমা আক্তারকে শহরের সেভেন ডে নার্সিং হোম এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করানো হয়। এরপর চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম আমার মেয়ের সিজারিয়ান অপারেশন করেন। ভুল অপারেশনের কারণে মেয়ের প্রচন্ড রক্তক্ষরণ হয়।

রহিমা খাতুন বলেন, বুধবার দুপুরে মেয়ে নাছিমা আক্তারের অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম উন্নত চিকিৎসার জন্য মেয়েকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেয়। পথে দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলায় পৌঁছলে গাড়িতেই আমার মেয়ে মারা যায়। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে চিকিৎসকের ভুলে প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হওয়ায় পরিবারের স্বজনরা হাসপাতাল ঘেরাও করে প্রতিবাদ জানায়। এসময় ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে তত্বাবধায়ক ডা: প্রভাষ কুমার রায়, চিকিৎসক শাহরিয়ার এর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

আধুনিক সদর হাসপাতালে তত্ত¡াবধায়ক ডা: প্রভাষ কুমার রায় বলেন, নবজাতক শিশুর অবস্থা ভালো রয়েছে। প্রসূতি মায়ের মৃত্যুর ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে এবং তদন্তে প্রমাণিত হলে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলমের মোবাইলে অসংখ্যবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আব্দুল লতিফ মিঞা বলেন, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি, অভিযোগ পেলে আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগেও ২০১৪ সালে শহরের সুশ্রী ক্লিনিকে এক প্রসূতি মায়ের গর্ভপাত ঘটানোর সময় তার মৃত্যুর অভিযোগে পুলিশ চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com