,
সংবাদ শিরোনাম :
» « ঠাকুরগাঁও জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি মকবুল হোসেন বাবুর ইন্তেকাল» « পঞ্চগড়ের রাবার ড্যামটি অকার্যকর হওয়ায় এলাকা প্লাবিত» « পঞ্চগড়ে চা চারা চুরির অভিযোগে মামলা» « এরশাদের মৃত্যুতে রেলপথ মন্ত্রীর গভীর শোক প্রকাশ» « সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ে প্রবল বর্ষণ ও ঝড়ো হাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি» « খুলনার দাকোপের লাউডোবে রুপান্তরের আয়োজন কিশোর- কিশোরীদের সু-স্বাস্থ্য সুরক্ষিত পরিবেশ প্রতিষ্ঠা বিষয়ক ক্যাম্পাইন অনুষ্ঠিত» « সারাদেশে অব্যাহত সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সোনাগাজী রিপোর্টার্স ইউনিটির মানববন্ধন» « ঠাকুরগাঁও গড়েয়ায় জুয়ার আসর আগুনে পুড়িয়ে দিল ওসি আশিকুর রহমান» « সাংবাদিক রাসেদুল ইসলাম রাসেল নিখোঁজ» « সোনাগাজীর ছাড়াইতকান্দি হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবনির্মিত ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন- মাসুদ চৌধুরী এমপি

আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে মালিকদের করণীয়:

আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে মালিকদের করণীয়:

জানে-আলম শেখ >>

১ মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস, যা বিশ্বের ইতিহাসে ‘মহান মে দিবস’ বা শ্রমিক দিবস হিসেবে গুরুত্বসহকারে পালিত হচ্ছে।

মহান আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে বিশ্বের সকল মালিকদের করণীয় হবে শ্রমিকদের সাথে ভালো ব্যবহার করা। তাদের সাথে রাজা ও প্রজার ব্যবধান ভুলে যাওয়া।

কারন আদরে দুলাল মা আমিনার নয়নমণি বিশ্বনবী (সা) কোনদিন শ্রমিকদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন নি। মনে রাখতে হবে সবকিছুর মালিক / স্রষ্টা মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন, আমরা মুলত এসব কিছুর প্রতিনিধিত্ব করছি মাত্র।

একদিন আহলে সুফফার অন্যতম সাহাবী হযরত আনাস (রা) কে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে, হে আনাস ! দীর্ঘ দশ বছর তুমি রাসুলের খেদমত করেছো এসময়ের মধ্যে রাসুল (সা) তোমার সাথে কেমন আচরণ করছে?

উত্তরে হযরত আনাস (রা) বলেন আমার দীর্ঘ দশ বছরের চলাফেরায় কোনদিন আল্লাহর রাসুল(সা) ধমক তথা আমার দিকে চোখ রাঙিয়ে কথা বলেন নি!

এ হাদিস থেকে সূর্যালোকের ন্যায় সুস্পষ্ট বুঝা যায় যে, শ্রমিকদের সাথে খারপ ব্যবহার করা আসাদের উচিত নয়। কারন তারা পরিবার পরিজন রেখে দীর্ঘ সময় মাথার ঘাম বিসর্জন দিয়ে মালিকের কাজ সততার সাথে করেন।

আর মহারাজাধিরাজ আল্লাহ পাক তাদের এ হালাল রুজির বরকত বাড়িয়ে দেন।

বিশ্ববাসির সুপার টিচার রাসুলে আকরাম (সা) বলেছেন, তোমরা শ্রমিকদের কে তাদের গায়ের ঘাম শুকিয়ে যাওয়ার পূর্বে তাদের মজুরি দিয়ে দাও। আর সম্ভব হলে তাদের কে বাড়তি কিছু দাও। এর প্রকৃত অর্থ হলো তোমরা শ্রমিকদের কে ন্যায্য মূল্য দিয়ে দাও। তাদের ন্যায্য মুল্য দিতে কার্পন্য করা উচিত নয়।

আসুন আন্তর্জাতিক মহান মে দিবসে আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহন করি যে, শ্রমিকদের কে তাদের ন্যায্য মূল্য প্রদান করবো ও তাদের সাথে বন্ধুসূলভ আচরন করবো। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও ত্যাগের বিনিময়েই আমরা আমাদের জীবনকে করেছি সহজ ও সহজতর। তাই কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকদের জীবনের ঝুঁকি গ্রহন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের একান্ত দায়িত্ব ও কর্তব্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com